ঢাকা ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

মৌসুমী জ্বরে পরিণত হতে পারে করোনা, যদি...

ফালগুনী রশীদ, একাত্তর
প্রকাশ: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ ২০:২৬:১৩ আপডেট: ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১৪:০৩:৪৫
মৌসুমী জ্বরে পরিণত হতে পারে করোনা, যদি...

স্প্যানিশ ফ্লু বা সোয়াইন ফ্লু। বিশ্বব্যাপী ইনফ্লুয়েঞ্জা জনিত যতগুলো মহামারি হয়েছে তার প্রায় সবই মৌসুমী জ্বরের মত মামুলি রোগে পরিণত হয়েছে।

করোনা সংক্রমণের দুই বছরে ৪৭ লাখেরও বেশি মানুষের প্রাণ কেড়েছে কোভিড-১৯। মোট আক্রান্তের পরিসংখ্যানও বাড়ছে প্রতি মিনিটে। টিকার ব্যবহারও হচ্ছে সর্বোচ্চ।

বিজ্ঞানীদের ধারণা আগামী কয়েক বছরের মধ্যে করোনাও মৌসুমী জ্বরে পরিণত হতে পারে যদি সবাই স্বাস্থ্যবিধি মানেন।

বিশ্বব্যাপী ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাস জনিত যতোগুলো মহামারি হানা দিয়েছে তার মধ্যে সবচেয়ে বড় ছিলো ১৯১৮ সালের স্প্যানিশ ফ্লু। 

তিন বছরে পাঁচ কোটিরও বেশি মানুষ মারা গেছে সেই মহামারিতে। ১৯৫৭ সালের এশিয়ান ফ্লুর স্থায়িত্ব ছিলো প্রায় ১৪ মাস। মারা যায় ১৫ থেকে ২০ লাখ মানুষ।

দশ বছর বিরতিতে আবারও ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাস নতুন রূপে সংক্রমণ ছড়ায়। যার নাম ছিলো হংকং ফ্লু। মারা যায় প্রায় ১০ লাখ মানুষ।

২০০৯ সালে সোয়াইন ফ্লুও আতঙ্ক ছড়িয়েছে বছরব্যাপী। সবগুলো ভাইরাসই এখন মৌসুমী রোগ বা সিজনাল ফ্লুতে পরিণত হয়েছে। করোনাও তেমনি এক ভাইরাস।

জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ বে নজীর আহমেদ জানান, কোভিড এখন একেক মৌসুমে একেক অঞ্চলে প্রকোপ ছড়াচ্ছে। ধীরে ধীরে এই প্রবণতা কমবে।

আরও পড়ুন: টানা চতুর্থ দিনের মতো শনাক্তের হার চারের ঘরে

আইইডিসিআর-এর প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা এ এস এম আলমগীর বলেন, বছরের নির্দিষ্ট সময়ে কেবল প্রকোপ থাকবে। তবে, সেই পথ এখনো অনেক দূরে। কারণ বিশ্বব্যাপী এখনও প্রায় দুই কোটি মানুষ করোনার সাথে লড়ছে।

শুধু বাংলাদেশ নয় বিশ্বব্যাপী এখন মূল লক্ষ্য আক্রান্ত শনাক্তের সংখ্যাটা শূন্যে নামিয়ে আনা। কারণ মানুষ থেকে মানুষে ছড়ানো এই ভাইরাসে পরিবর্তন বা বংশবৃদ্ধি কোনটাই ঘটাতে পারবে না যদি মানুষের শরীরে বাসা বাঁধতে না পারে।

একাত্তর/আরএ

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন