ঢাকা ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

কিশোর বাউলের মাথা ন্যাড়ার ঘটনায় দুজন এখনও পলাতক

নিজস্ব প্রতিনিধি, বগুড়া
প্রকাশ: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ ২০:৩৮:৫২ আপডেট: ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০১:৫৭:১১
কিশোর বাউলের মাথা ন্যাড়ার ঘটনায় দুজন এখনও পলাতক

বগুড়ার শিবগঞ্জে বাউল শিল্পী মেহেদী হাসানের মাথা ন্যাড়া করা ও নির্যাতনের মামলার অন্যতম দুই আসামি ফজলু ও তাহের এখনো পলাতক রয়েছেন।

তবে, পুলিশ জানিয়েছে তাদের গ্রেপ্তারের অভিযান চলছে। এর আগে মামলার তিন আসামি গুজিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ইংরেজি শিক্ষক মেজবাউল ইসলাম (৫২), একই গ্রামের শফিউল ইসলাম খোকন (৫৫) ও তারেক রহমানকে (২০) ঘটনার দিন রাতেই গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তারা বর্তমানে জেল হাজতে রয়েছেন। 

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) শিবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলামের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বাকি আসামিরা এখনো পলাতক থাকায় তাদের গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি। তবে, ওই কিশোর বাউলের নিরাপত্তার জন্য গ্রামে পুলিশ টহলের ব্যবস্থা করা হয়েছে। 

এদিকে নির্যাতিত বাউল মেহেদী হাসান জানান, তিনি এখনও নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। 

মেহেদী আরও জানান, এলাকার প্রভাবশালী একটি মহল তাকে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য চাপ দিচ্ছে। 

উল্লেখ্য, ১৬ বছর বয়সী মেহেদী গত কয়েক বছর ধরে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে বাউল গান গেয়ে বেশ জনপ্রিয়তা পান। 

এজন্য গ্রেপ্তার হওয়া ওই তিন আসামিসহ গ্রামের আরও কয়েকজন ব্যক্তি তাকে প্রায় গালাগাল করতো। গান ছেড়ে দিতে বলতো। 

সাদা লুঙ্গি ও ফতুয়া পরা যাবে না এবং মাথার চুল বড় করলে গ্রাম ছাড়া করা হবে এমন হুমকিও দিতেন তারা।  

এসবের প্রতিবাদ করায় গত ১৮ সেপ্টেম্বর রাতে মেহেদীকে ঘুম থেকে তুলে মাথা ন্যাড়া করে দেওয়ার পাশাপাশি তাকে কান ধরে উঠবস করান আসামিরা। 

কিশোর বাউলের মাথা ন্যাড়া করলো তিন মাতবর

গ্রেপ্তার তিন আসামি ও কিশোর বাউল মেহেদী


ঘটনার দিন রাতেই শিবগঞ্জ থানায় নির্যাতনের অভিযগে পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন মেহেদী। 

এরমধ্যে গ্রেপ্তার হওয়া তিন আসামির নাম মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয় এবং অজ্ঞাত হিসেবে আরও দুজনকে আসামি করা হয়। 

আরও পড়ুন: ৭০ বছর পর ছেলের সঙ্গে দেখা হচ্ছে মায়ের

গ্রামের বাসিন্দারা জানান, জুড়ি মাঝপাড়া গ্রামের বাসিন্দা ১৬ বছর বয়সী মেহেদী স্থানীয় একটি স্কুলে ষষ্ঠ শ্রেণি পর্যন্ত লেখাপড়া করেছে। সংসারে অভাবের কারণে সে আর পড়াশুনা চালিয়ে যেতে পারেনি। 

বাউল মতিনের সঙ্গে কয়েক বছর আগে ওই কিশোরের পরিচয় হয়। তখন থেকে মতিন বাউলের সঙ্গে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে বাউল গান গেয়ে সংসার চালাতো মেহেদী।


একাত্তর/আরবিএস

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন