ঢাকা ২৩ অক্টোবর ২০২১, ৮ কার্তিক ১৪২৮

ভুল কসমেটিক চিকিৎসার শিকার সুপারমডেল লিন্ডা

একাত্তর অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশ: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ ২১:৫৯:০৪
ভুল কসমেটিক চিকিৎসার শিকার সুপারমডেল লিন্ডা

লিন্ডা ইভানজেলিস্তা। আশি ও নব্বই দশকে লাখো কোটির হৃদয় হরণকারী এই সুপার মডেল আবারও শিরোনামে। দীর্ঘ দিন থেকেই পর্দার আড়ালে ছিলেন এই কানাডিয়ান মডেল।

সম্প্রতি নিজের ইনস্টাগ্রামে এক পোস্ট দিয়েই রাতারাতি আলোচনায় ফিরে আসেন ইভানজেলিস্তা। সেখানে তিনি বলেছেন, ভুল কসমেটিক চিকিৎসার জন্য তার শরীরের গঠন নষ্ট হয়ে গেছে, যা তাকে সামাজিকভাবে বিচ্ছিন্ন করে রেখেছে। আর মানসিকভাবে বিভীষিকার মধ্যে আছেন।

শুধু পোস্ট দিয়েই থেমে থাকেননি এই সুপার মডেল। সেই কসমেটিক চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে পাঁচ কোটি ডলারের ক্ষতিপূরণ মামলাও করে দিয়েছেন।


ইনস্টাগ্রাম পোস্টে ইভানজেলিস্তা জানান, ক্যারিয়ারের মধ্য গগনে থাকার পরও কেন তিনি আড়ালে চলে গেলেন, তা নিয়ে ভক্তদের অনেক প্রশ্ন ছিলো।

কারণটা আর কিছুই নয়, ওজন কমানো ও ফিগার ঠিক রাখার জন্য একটি বিশেষ কসমেটিক চিকিৎসার শিকার হয়েছেন তিনি। যার ফলে তার ফিগার নষ্ট হয়ে গেছে। যার কারণে সামনে আসতে পারছেন না।

তিনি বলেন, ‘ওই প্রতিষ্ঠানটি শুধু আমার ফিগারই নষ্ট করে দেয়নি, সেই সঙ্গে আমার জীবনচক্রই বদলে দিয়েছে। গভীর বিষণ্ণতায় আক্রান্ত এবং নিজের প্রতি ঘৃণা জন্মেছে। আমি এখন বিচ্ছিন্ন এক মানুষ’।

আরও পড়ুন: কিশোর বাউলের মাথা ন্যাড়ার ঘটনায় দুজন এখনও পলাতক

গেলো মঙ্গলবার নিউইয়র্ক ফেডারেল আদালতে জেলটিক নামের প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে মামলা করেন ইভানজেলিস্তা। জেলটিকের বিরুদ্ধে তিনি অবহেলা, বিভ্রান্তিকর বিজ্ঞাপন এবং গ্রাহককে সম্ভাব্য পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে সতর্ক করতে ব্যর্থতার অভিযোগ আনেন।


মামলায় বলা হয়েছে, ইভানজেলিস্তা তার উরু, পেট, পিঠ, কোমর এবং চিবুকের উপর চর্বি কমাতে ২০১৫ থেকে ২০১৬ সালের মধ্যে একাধিক সেবা নিয়েছেন। কিন্তু ঠিক মতো কোন কাজ শেষ করেনি। যার কারণে তিনি গেল পাঁচ বছর ধরে মডেলিং থেকে কোন আয় করতে পারছেন না।


একাত্তর/আরএ

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন