সেকশন

মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১
 

অভয়ারণ্যের ১৮ খালে নির্ভয়ে চলছে মাছ ধরা

আপডেট : ১৫ অক্টোবর ২০২১, ০৮:০৮ পিএম

সুন্দরবনে নিষিদ্ধ জালে মাছ ধরা বন্ধ হচ্ছে না। পাশাপাশি অবাধে মাছ ধরা হচ্ছে মাছের অভায়ারণ্য ঘোষিত ১৮টি খালে।

বিশেষজ্ঞরা বলছে এই দুই অনিয়মে বিলুপ্ত হচ্ছে মাছের বহু জাত। আর, জেলেরা জানান ঘুষ দিয়ে নিষিদ্ধ জাল নিয়ে অসাধু জেলেদের বনে ঢুকতে দেন বনরক্ষীরা। 

একইভাবে বন বিভাগের টহল দলও অবাধে মাছ ধরতে দিচ্ছে অভয়ারণ্য ঘোষিত খালে। এতে হুমকির মুখে পড়েছে সুন্দরবনের প্রাণ-প্রকৃতি।

দিনের বেলা তড়িঘড়ি করে সুন্দরবনের নদী ও খালে পাতা হয় খালপাটা জাল। এই জালের ফাঁস খুবই ঘন। যা সুন্দরবন এলাকায় অনেক আগে থেকেই নিষিদ্ধ।

গভীর রাত পর্যন্ত পাতা সেসব জালে আটকে থেকে চিংড়ি ট্যাংরাসহ ধরা পড়ে কাইন মাগুর, আইড়, ভেটকি, ভোলা, রুপচাদা, দাতিনা, বোয়াল, পাঙ্গাস, মেদ, শিলনসহ বহু নানা জাতের মাছ। সঙ্গে এসব মাছের পোনা।

আরও পড়ুন: নিত্যপণ্যের বাজার লাগামহীন, দাম আকাশ ছোঁয়া

এসব জালে ধরা পড়ে সাপ-কাঁকড়াসহ নানা জলজ প্রাণী এবং পোনাও। যদিও জেলেরা দাবি করেন পোনা এবং প্রাণী তারা ছেড়ে দেন নদীতে।  

সুতার খালী কালাবগি ফরেস্ট অফিসের কাছে সরবত খালী খাল। এই খালে মাছ ধরা নিষিদ্ধ। অথচ খালে ঢুকে দেখা গেলো জাল পেতে বসে আছেন বহু জেলে। 

জেলেরা জানান, নিষিদ্ধখালে মাছ ধরতে জনপ্রতি পাঁচ থেকে ছয়শ’ টাকা দিতে হয়। আর নিষিদ্ধ জাল থাকলে দিতে হয় মাথাপিছু তিনশ’ টাকা। 

যদিও বনে টহলরত কর্মকর্তারা এসব অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, তারা কড়া তল্লাশি শেষে নৌকা সুন্দরবনে ঢোকার অনুমতি দেন।  

বন বিভাগের তথ্য অনুযায়ী পুরো বনে ১৮টি খাল রয়েছে যেখানে মাছ ধরা নিষিদ্ধ। একইভাবে নিষেধ সব নেট, কারেন্ট, বেহুন্দিসহ মোট ১৬ ধরনের অবৈধ জালে মাছ ধরা।


একাত্তর/টিএ

সীমানা জটিলতায় চাহিদামতো অবকাঠামো নির্মাণ না হওয়া, ভারতের পণ্য আমদানিতে অতিরিক্ত পরিবহন খরচের কারণে এক বছরেও সচল হয়নি ফেনীর পরশুরাম বিলোনিয়া স্থলবন্দর। এছাড়া সুযোগ-সুবিধা না থাকায় আমদানি-রপ্তানিতে...
নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে শেরপুরের গারো পাহাড়ে পল্লী বিদ্যুতের সংযোগ দেয়ায় হুমকিতে পড়েছে বন্য প্রাণীরা। অবৈধভাবে ঘর-বাড়ি নির্মাণ করে বিদ্যুতের সংযোগ নিয়ে বসবাসের কারণে বন আলোকিত হওয়ায় বিভিন্ন দিকে...
সাভার-আশুলিয়ার বিশাল এলাকাজুড়ে কিশোর গ্যাংয়ের দৌরাত্ম্যে অতিষ্ঠ মানুষ। সেখানে এক মাসে কিশোর গ্যাংয়ের হাতে খুন হয়েছে চারজন। কিন্তু তাদের নিয়ন্ত্রণে পুলিশের কোনো তৎপরতা দেখা যাচ্ছে না বলে অভিযোগ...
জামালপুরের মেলান্দহে ক্ষুদ্র ঋণের জালে আটকা পড়ে আছে অসংখ্য দরিদ্র পরিবার। অনেকেরই অভিযোগ কয়েক বছর আগে সুদসহ ঋণের সব টাকা পরিশোধ করেও তারা গ্রামীণ ব্যাংকের ঋণের জাল থেকে বেরিয়ে আসতে পারছেন না।...
ইরান ও পাকিস্তানের সম্পর্কটা অনেকটা আবহাওয়ার মতো। এই ভালো তো, এই এই খারাপ। এই তো, গেলো কয়েক মাসে আগেই দেশ দু’টোর সম্পর্ক রূপ নিয়েছিল দা-কুমড়ায়। এখন আবার জোট হতে যাচ্ছে। তাই তো ইসরাইলের সাথে যুদ্ধের...
পটুয়াখালীর বাউফলে তীব্র তাপদাহে এক পুলিশ সদস্যের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার রাত ৯টার দিকে তিনি হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন। এরপর তাকে হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন তিনি।
বাংলাদেশবিরোধী ষড়যন্ত্র শুধু দেশের ভেতরে নয়, বিদেশেও হচ্ছে বলে দাবি করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।
‘‘ঝড় এলো এলো ঝড়, আম পড় আম পড়, কাঁচা আম ডাঁসা আম, টক টক মিষ্টি, এই যা...এলো বুঝি বৃষ্টি…’’
লোডিং...
Nagad Ads
সর্বশেষপঠিত

এলাকার খবর


© ২০২৪ প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত