সেকশন

সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১
 

জেলেদের খাদ্য সহায়তা কার্ড বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ

আপডেট : ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০২:৪৬ পিএম

মা ইলিশ সংরক্ষণে সরকারি অবরোধে মোংলাসহ আশপাশ উপকূলের জেলেরা জাল-নৌকা ঘাটে রেখে ঘরে বেকার অবস্থায় রয়েছেন। নদীতে জাল ফেলতে না পারায় আয় না থাকায় ঘরে চাল নেই তাদের, ভাত নেই পেটে। অবরোধ পালনকারী সরকারি চাল বরাদ্দের সহায়তাও মিলছেনা সঠিক সময়ে। তারপরও খাদ্য সহায়তার কার্ড পাওয়া না পাওয়া নিয়ে রয়েছে জেলেদের নানান অভিযোগ।

অভিযোগ রয়েছে, এদেশের জেলেরা যখন অবরোধ পালন করছেন তখনই ভিন দেশী জেলেরা সাগর থেকে লুটে নিয়ে যাচ্ছেন মা ইলিশসহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছ। ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন এদেশের জেলেরাই।

সরেজমিনে জেলে-পরিবারে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সাগর-সুন্দরবনে বর্তমানে চলছে মা ইলিশ সংরক্ষণের অবরোধ। ২২ দিনের অবরোধ, তাই মোংলার সমুদ্র ও সুন্দরবন উপকূলের জেলেদের জাল, দড়ি ও নৌকা-ট্রলার এখন ঘাটে অলস পড়ে রয়েছে। জেলে পেশার এ সকল মানুষের ভিন্ন কোন কাজের সুযোগও নেই। তাই বেকার হয়ে ঘরে বসে সময় কাটছে তাদের। নদীতে জাল ফেলতে না পারায় আয়ও নেই। তাই খেয়ে না খেয়ে মানবেতর জীবন করছেন হাজার হাজার জেলে পরিবারের। তাদের এ দুঃখ যেন দেখার কেউ নেই।

স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে যে জেলে কার্ড দেয়া হয়, তাতেও স্বজনপ্রীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। ফলে প্রকৃত জেলেরা সেই কার্ড থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। যাদের কার্ড রয়েছে তারাও এখনও পাননি চলতি অবরোধের সময়ের খাদ্য সহায়তা।

জেলেরা খাদ্য সহায়তা পায়নি এর আগের ৬৫ দিনের অবরোধেরও। তাই চরম দুঃখ কষ্টে পশুর নদীর পাড়ের জেলে পরিবারগুলো। নির্বাচনে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি বদলের পাশাপাশি বদলে যাচ্ছে জেলেদের কার্ডের মালিকানাও।

সাগর-নদীতে মাছ ধরেন চাঁদপাই ইউনিয়নের জেলে সুজন সরকার তিনি বলেন, আমার জেলে কার্ড রয়েছে, একবার মাত্র চাল পেয়েছি। এখন শুনছি আমার কার্ড মেম্বার কেটে দিয়েছে।

চাঁদপাই ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য দুর্জয় হালদার বলেন, যারা জেলে না এমন লোকও কার্ড পেয়েছেন। তাই তাদেরকে বাদ দিয়ে প্রকৃত জেলেদের কার্ড দেয়া হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, কার্ড করার সময় অনেক জেলে সাগরে-সুন্দরবনে থাকায় তারা তালিকাভুক্ত হয়নি। নতুন তালিকায় বাদ পড়াদের অন্তর্ভুক্ত করতে মৎস্য কর্মকর্তাদের অনুরোধ জানিয়েছি।

চিলার জেলে রোকন সরকার বলেন, চলতি ২২ দিনের অবরোধের কোন খাদ্য সহায়তা আমরা এখনও পাইনি। আমরা খুব কষ্টে আছি, সরকারের কাছে সহায়তা পাওয়ার আবেদন জানাচ্ছি।

জেলে অঞ্জন বলেন, আমাদের পেশা নদীতে জাল ধরা। এখন বন্ধ থাকায় কোন কাজ নেই, খুব কষ্টে আছি। সরকারের কাছে দাবি আমরা যেন দ্রুত সহায়তা পাই।

কানাইনগর গ্রামের জেলে গাবরিয়েল সরদার বলেন, সারাজীবন জেলে পেশায় আছি, আজও কোন কার্ড পাইনি। জেলে নেতা বিদ্যুৎ বাবু কার্ড করতে আঠারো টাকা চেয়েছিল, দিতে না পারায় কার্ড দেয়নি।

দক্ষিণ কাইনমারী গ্রামের কমলা সরকার বলেন, আমাদের এখানকার ৯৫ ভাগ লোকই জেলে। অনেকের জেলে কার্ড আছে চাল পায়না, কি সমস্যা আছে জানিনা। আর যাদের যে চাল দেয়া হয় তাতে তাদের চলেনা।

তিনি আরো বলেন, এখন মাছ ধরায় নিষিদ্ধ সময় চলছে দেশে, আর এই সুযোগে ভারতের জেলেরা আমাদের সাগর থেকে মাছ ধরে নিয়ে যাচ্ছে। তাহলে কি লাভ হলো সরকারের এই অবরোধ দিয়ে।

অভিযোগ করে জেলেরা বলেন, সরকারি অবরোধ মেনে আমরা ঘরে বসে আছি। সেই সুযোগে ভারতের জেলেরা সাগর থেকে মাছ লুটে নিয়ে যাচ্ছে। তাহলে অবরোধের মানে হলো কি? এছাড়া অবরোধের খাদ্য সহায়তাও এখনও পাইনি। আমরা বছরের পর বছর ধরে নদীতে মাছ ধরি তারপরও জেলের স্বীকৃতি পায়নি। যারা জেলে না এমন লোক সহায়তা কার্ড পাচ্ছেন। আমাদের দুঃখের কথা সবাইকে বলি কিন্তু তাতে কোন কাজই হয়না।

সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. জাহিদুল ইসলাম বলেন, শীঘ্রই জেলেদের খাদ্য সহায়তা দেয়া হবে, আর জেলেদের জন্য নতুন তালিকা করা হচ্ছে। এটা সম্পন্ন হলে অনেকেই সহায়তার আওতায় আসবেন। যারা প্রকৃত জেলে না তাদেরকে বাদ দেয়া হবে। আবার সময় মত প্রকৃত জেলেরা তথ্য না দেয়ায় বাদ পড়ে থাকতে পারেন।

তিনি আরো বলেন, জেলে কার্ড বিতরণের নানা অনিয়মের অভিযোগের বিষয়টি তারও কানে এসেছে। তাই অনিয়ম রোধে তিনি নিজেই কার্ড নিবন্ধনের কাজ করছেন।

আরও পড়ুন: সোমবার রাত ১২টার পর থেকে ইলিশ ধরা শুরু

অপরদিকে চলমান অবরোধের সময় ভিনদেশী জেলেরা এদেশের সাগরের মাছ ধরে নিয়ে যাচ্ছেন জেলেদের এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে জাহিদুল ইসলাম বলেন, এ বিষয়টি গুরুত্বের সাথে দেখার জন্য নৌবাহিনী ও কোস্ট গার্ডের সাথে আলাপ হয়েছে। তারা বিষয়টি দেখছেন। এবং আমরা কোস্ট গার্ডের সাথে যৌথ অভিযান পরিচালনা করছি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কমলেশ মজুমদার বলেন, আমাদের সমুদ্রসীমায় কোস্ট গার্ড ও নৌবাহিনীর টহল বাড়ানেরা জন্য ইতিমধ্যে চিঠি দেয়া হয়েছে। তারপরও যারা এদেশের সাগরে যখনই ঢুকছেন তখনই তাদেরকে ধরে এনে পুলিশে সোপর্দ করছেন নৌবাহিনী-কোস্ট গার্ড সদস্যরা।


একাত্তর/আরএ

মধ্যরাত থেকে পদ্মা-মেঘনা-তেঁতুলিয়া নদীসহ ইলিশের অভয়াশ্রমে দুই মাসের জন্য ইলিশ ধরায় নিষেধাজ্ঞা শুরু হচ্ছে।
সম্প্রতি নোয়খালীতে পুকুর থেকে একটি বিশাল কুমির উদ্ধারের পর দেশজুড়ে রীতিমতো হৈ চৈ পড়ে যায়। এর রেশ কাটতে না কাটতেই ঘটলো আরেক অবাক কাণ্ড! কেননা এবার পুকুরে ধরা পড়েছে জ্যান্ত ইলিশ। যথারীতি আবারও হৈ চৈ,...
ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুম 'মা' ইলিশ রক্ষায় ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা শেষে এবার শুরু হয়েছে জাটকা আহরণের নিষেধাজ্ঞা। দেশের ইলিশ সম্পদ উন্নয়নে জাটকা সংরক্ষণে চলতি নভেম্বর মাসের ১ তারিখ থেকে আগামী বছরের ৩০...
মধ্যরাত থেকে শুরু হয়েছে ইলিশ ধরায় ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা। তবে শেষ মুহূর্তেও জেলেদের মুখে ছিল না হাসি। তারা বলছেন, এবার বৈরি আবহাওয়ায় ধরতে পারেননি কাঙ্ক্ষিত ইলিশ। উল্টো জাল-ট্রলারের ক্ষতি হয়েছে।
ডেভিল কমেট বা শিংওয়ালা ধূমকেতু। পৃথিবী থেকে যার দেখা মেলে নূন্যতম ৭১ বছর পর। চলতি বছরের ২১ এপ্রিল ছিলো সেই মাহেন্দ্রক্ষণ। দুর্লভ এই মুহূর্তের সাক্ষী হতে রাজশাহীর পদ্মাপাড়ে জড়ো হয়েছিলেন হাজারো...
বৈশাখের শুরুতেই গরমে পুড়ছে পশ্চিমবঙ্গ । রাজস্থানের মরুভূমি জয়সলমীরের চেয়েও তাপমাত্রার পারদ বেশি পশ্চিমবঙ্গে। রাজ্যটির পশ্চিমাঞ্চলের বেশ কয়েকটি জেলায় চরম তাপপ্রবাহের সতর্কতা জারি হয়েছে।
অভিনেতা অলিউল হক রুমি মারা গেছেন। সোমবার সকালে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয় বলে পারিবারিক সূত্র গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছে।
চলমান তাপপ্রবাহের কারণে চাঁপাইনবাবগঞ্জে আমের ফলনে বিরূপ প্রভাব পড়েছে। শতকরা ৬০ ভাগ মুকুল আসলেও বৈরী আবহাওয়ায় মাত্র ২৫ ভাগ গাছে আম ঝুলছে। দ্রুত বৃষ্টি না হলে বা সেচ দিতে না পারলে অবশিষ্ট আমও ঝরে...
লোডিং...
Nagad Ads
সর্বশেষপঠিত

এলাকার খবর


© ২০২৪ প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত