ঢাকা ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

সিলেটে নানামুখী সংকট আর দুর্ভোগে পানিবন্দি মানুষ

ইকবাল মাহমুদ, সিলেট
প্রকাশ: ১৯ মে ২০২২ ২১:৩৯:৩৩ আপডেট: ১৯ মে ২০২২ ২১:৪৭:২০
সিলেটে নানামুখী সংকট আর দুর্ভোগে পানিবন্দি মানুষ

টানা বৃষ্টিতে সিলেটের বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। সিলেট নগরসহ জেলার ১৩টি উপজেলায় প্লাবিত হওয়া হাজার হাজার গ্রামে এখনো পানি কমছে না।

তবে ছয়টি উপজেলার মানুষ বেশি দুর্ভোগে পড়েছেন। ডুবে গেছে রাস্তাঘাট ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে দেখা দিয়েছে খাবার ও বিশুদ্ধ পানির সংকট। 

পানি উন্নয়ন বোর্ডের দেয়া হিসাব অনুযায়ী, সুরমা নদীর পানি এক সেন্টিমিটার কমলেও এখনও বিপদসীমার ৪৮ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে বইছে। 

আর কুশিয়ারার পানি নতুন করে বেড়েছে ৫৩ সেন্টিমিটার। এ অবস্থায় বন্যার পানি ক্রমাগত ঢুকছে সিলেট নগরীর ভেতরে। সেই সঙ্গে প্লাবিত এলাকার পরিস্থিতি আরও অবনতি ঘটছে। 

বন্যায় ঘর-বাড়ি ডুবে যাওয়ায় বড় সংকট দেখা দিয়েছে বিশুদ্ধ খাবার পানির। অনেকেই বোতল পানি কিনে খেলেও নিম্ন আয়ের মানুষ আছেন বড় বেকায়দায়। 

স্থানীয় প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিসহ বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, সিলেটে কমপক্ষে ১০ থেকে ১২ লাখ মানুষ পানিবন্দী আছেন। পানি না কমলে এই সংখ্যা আরও বাড়বে। 

স্কুলগুলোতে এসএসসির টেস্ট পরীক্ষা চলছে। আকস্মিক এ বন্যায় পরীক্ষার্থীরা পড়েছে দুর্ভোগে। এদিকে, বন্যার কারণে অন্যত্র আশ্রয় নেয়া মানুষ নিজেদের ঘর বাড়ি নিয়ে আছেন শঙ্কায়। 

বন্যাকবলিত এলাকার মানুষ পানিবাহিত নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। সাপ, পোকামাকড় ও জোঁকের উপদ্রব বেড়েছে। শৌচাগার ডুবে যাওয়ায়ও চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

উপজেলা সদরের সঙ্গে অধিকাংশ এলাকার মানুষের সড়কপথে যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে। যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে মানুষ নৌকা ও কলাগাছ দিয়ে তৈরি ভেলা ব্যবহার করছে।

এদিকে, আকস্মিক বন্যার খবর পেয়ে যুক্তরাজ্য সফর সংক্ষিপ্ত করে বৃহস্পতিবার সকালে দেশে ফিরেছেন সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। 

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর জন্য নানামুখী পদক্ষেপ নেয়ার কথা জানান তিনি। মেয়র বলেন, সুরমা নদীর খনন ছাড়া কোনোভাবেই বন্যা পরিস্থিতি ঠেকানোর সুযোগ নেই।

আরও পড়ুন: শুক্রবার জানাজা শেষে দেশে আনা হবে গাফফার চৌধুরীর মরদেহ

মেয়র বলেন, সিটি কর্পোরেশন নগরবাসীর পাশে আছে। প্লাবিত এলাকার লোকজনের জন্য খাবার ও বিশুদ্ধ পানির সংকট দূর করতে তারা কাজ করছে। 

পানি না নামা পর্যন্ত দুর্ভোগ কমাতে তিনি নগরবাসীর পাশে দিনরাত থাকবেন বলে আশ্বাস দেন। পাশাপাশি দুর্যোগময় এই পরিস্থিতিতে বিত্তশালীদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান মেয়র।

পানিবন্দি মানুষের জন্য সরকারের পাশাপাশি ত্রাণ সহযোগিতা নিয়ে এগিয়ে এসেছেন বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক সংগঠন এবং বিত্তশালী ব্যক্তিবর্গ।


একাত্তর/এসজে

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন

Nagad Ads
ছাদ খোলা অভিবাদন!

ছাদ খোলা অভিবাদন!

২ মাস ১২ দিন আগে