ঢাকা ০১ অক্টোবর ২০২২, ১৬ আশ্বিন ১৪২৯

আবারো সেই ‘রাজা’য় টাইগার বধ, জিম্বাবুয়ের সিরিজ জয়

একাত্তর অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশ: ০৭ আগষ্ট ২০২২ ২১:৩১:৪৬ আপডেট: ০৭ আগষ্ট ২০২২ ২২:০৪:৩৯
আবারো সেই ‘রাজা’য় টাইগার বধ, জিম্বাবুয়ের সিরিজ জয়

আজকের ম্যাচটি যেন প্রথম ওয়ানডে’র পুনরাবৃত্তি। আগের ম্যাচে সিকান্দার রাজার কাছেই হেরে গিয়েছিল বাংলাদেশ। আজও এর ব্যক্তিক্রম হলো না। সেই ‘রাজা’য় আজও বধ হলো টাইগাররা। এই ম্যাচে জিম্বাবুয়ে পেয়েছে জোড়া সেঞ্চুরি। টাইগারদের ‘ধীরগতি’র ব্যাটিংয়ের পর পেশাদার ক্রিকেট খেলে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে পাঁচ উইকেটে জিতে ওডিআই সিরিজ নিশ্চিত করলো স্বাগতিকরা। যদিও তাদের লক্ষ্য ছিল ২৯১ রান।

রোববার (৭ আগস্ট) হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নাম বাংলাদেশ। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে করেছে ২৯০ রান। মাহমুদউল্লাহর হার না মানা ৮০ রানের সঙ্গে তামিমের ৫০ ও আফিফের ৪১ রানে ২৯০ সংগ্রহ করে। 

তবে বাংলাদেশের আজকের ইনিংসটিও ছিল ধীর গতির।  জিম্বাবুয়ের বোলারদের সমীহ করে ৩০০ বলের ১৪৯টি-ই ডট দিয়েছে সফরকারীরা। অর্থাৎ ৫০ ওভারের ইনিংসে ডট হয়েছে প্রায় ২৫ ওভার। আর নিজেরা ব্যাট থেকে রান তুলেছে ২৫ ওভারে।

ব্যাক টু ব্যাক ফিফটি তুলে নেওয়া তামিম ওয়ানডেতে আজ করা তার ৫৫তম অর্ধশতক আসে ৪৩ বলে। যেখানে ১০ চার ও এক ছয়ে করেন ৪৪ রান। অর্থাৎ ১১ বলেই ৪৪ করেন তিনি। পরে ৫০ রান করে ফেরা তামিম ৪৫ বলের মধ্যে ৩০টি-তে কোনো রানই নেননি।

এদিন মাত্র ২৫ বল খেলেই রান আউট হয়ে যান নয়া ওপেনার এনামুল বিজয় (২০)। মাঝখানে শান্ত ও মুশফিক হাল ধরলেও সেটি স্থায়ী হয়নি। মুশফিক ফিরেছেন ২৫ আর শান্ত ৩৮ রানে। তবে এক পাশ আগে ছিলেন রিয়াদ। তাকে ভালো সঙ্গ দিয়েছেন আফিফ (৪১)।

শেষদিকে ফিফটির কোটা ছোয়ার পর কিছুটা দ্রুত রান এসেছে মাহমুদউল্লাহর ব্যাটে। তার ৮৩ বলে ৮০ রানের কল্যাণে নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ৯ উইকেট হারিয়ে স্কোর বোর্ডে ২৯০ রানের সংগ্রহ পায় বাংলাদেশ দল।

অপরদিকে, ব্যাট হাতে শুরুতেই ব্যাকফুটে চলে যায় জিম্বাবুয়ে। দলীয় ৪৯ রানের মধ্যে চার উইকেট হারায় স্বাগতিকরা। 

পরে আজও ত্রাণকর্তা হয়ে আসেন ফর্মের তুঙ্গে থাকা সিকান্দার রাজা। ১২৭ বল মোকাবেলায় আটটি চার ও চারটি ছয়ে অপরাজিত থাকেন ১১৭ রানে। বল হাতেও তিনি এদিন শিকার করেন তিনটি উইকটে।

অপরদিকে এই জয়ে পথে রাজার পরে যে খেলোয়াড় গুরুর্ত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন রাগিজ চাকাভা। তার আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ের জয়ের পথ সহজ হয় জিম্বাবুয়ের। ১৩৬ স্ট্রাইক রেটে রান তোলা এই ব্যাটার ১০২ রান করে ফেরেন সাজঘরে। এই রান করতে তিনি বল খরচ করেন মাত্র ৭৫টি।

শেষ পেরেকটি ঠুকেন টনি। তিনি মাত্র ১৬ বল খেলে করেন ৩০ রান।

বাংলাদেশের পক্ষে এদিন হাসান মাহমুদ ও মেহেদি মিরাজ দুটি করে উইকেট লাভ করেন। অন্য উইকেটটি পান তাইজুল ইসলাম।

ম্যাচ সেরা হয়েছেন সিকান্দার রাজা।


একাত্তর/এসি

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছাদ খোলা অভিবাদন!

ছাদ খোলা অভিবাদন!

১০ দিন ৩ ঘন্টা আগে