ঢাকা ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৩ আশ্বিন ১৪২৯

রুশদির বইয়ের উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে সরব অপর্ণা

একাত্তর অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশ: ১৫ আগষ্ট ২০২২ ২২:০৫:১৩
রুশদির বইয়ের উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে সরব অপর্ণা

নিউইয়র্কে ছুরিকাঘাতে আহত লেখক সালমান রুশদির স্বাস্থ্যের কিছুটা উন্নতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন তার এজেন্ট অ্যান্ড্রু ওয়াইলি। ভেন্টিলেটর খুলে ফেলা হলেও সালমানের আঘাত গুরুতর হওয়ায় তার সেরে উঠতে লম্বা সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।  

যে বইকে ঘিরে এতো বিতর্ক এবং এ হামলার ঘটনা ঘটলো, ৩৪ বছর পর এবার ভারত সরকারকে সেই 'দ্য স্যাটানিক ভার্সেস' বইয়ের উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে আহ্বান জানালেন অভিনেতা অপর্ণা সেন।  

অপর্ণা সেন এক টুইট বার্তায় বলেন, আমি কংগ্রেস সরকারের তুষ্টি নীতির পাশপাশি অসাংবিধানিকভাবে 'স্যাটানিক ভার্সেস' নিষিদ্ধ করার নিন্দা জানাই। আমি ক্ষমতায় থাকা সরকারকে আমাদের স্বাধীনতার ৭৫তম বার্ষিকীতে বইটির উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার এবং আমাদের সংবিধানকে সম্মান করার জন্য অনুরোধ করছি।

যদিও অপর্ণার এমন দাবিকে খুব একটা সুবিধার মনে করছেন না নেট নাগরিকরা। অপর্ণার টুইটে অনেকেই বলেছেন, 'স্যাটানিক ভার্সেস' এর উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিলে ভারতে আবার দেখা দিতে পারে ধর্মীয় সংঘাত। এই মুহূর্তে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার অর্থ বিজেপিকে আরও সুযোগ করে দেয়া, অপর্ণা কি বিজেপিকে সেই সুযোগ করে দিচ্ছেন? এমন প্রশ্নও করেছেন অনেকে।    

তবে এ বিষয়ে বিজেপির পক্ষ থেকে এখনও কোনো মন্তব্য আসেনি। 

রুশদি তার স্যাটানিক ভার্সেস বইটি লিখেছিলেন ১৯৮৮ সালে। একই বছর ২৬ সেপ্টেম্বর বইটি ইংল্যান্ডে প্রকাশিত হয়। কিন্তু কিছুদিনের মধ্যেই বইটিকে ঘিরে তৈরি হয় বিতর্ক। ওই উপন্যাসের প্রেক্ষাপট ছিল ইসলামপূর্ব আরব সমাজ। সেখানে ইসলাম ধর্মের বিষয়ে যে বক্তব্য ছিল, তা মেনে নিতে পারেন মুসলিম বিশ্ব। ফলে বিশ্বের বহু দেশেই বিক্ষোভ চলে এবং একাধিক দেশে নিষিদ্ধ হয় উপন্যাসটি। 

আরও পড়ুন: উত্তরায় ফ্লাইওভারের গার্ডার চাপায় পাঁচজনের মৃত্যু

রুশদির বইটি সবার আগে ভারতই নিষিদ্ধ হয়। ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধী ভারতে ওই বই আমদানির উপরে নিষেধাজ্ঞা জারি করেন। কেউ বিদেশ থেকে যাতে ওই বই নিয়ে না আসেন, তার নির্দেশও দেওয়া হয়। পাশাপাশি রুশদির ভারতে আসার উপরেও নিষেধাজ্ঞা জারি হয়। 

যদিও ১১ বছর পর ১৯৯৯ সালে অটলবিহারী বাজপেয়ীর প্রধানমন্ত্রিত্বের সময় রুশদির উপর ভারতে আসার নিষেধাজ্ঞা উঠে যায়। পরে রুশদি ভারতে আসতে পারলেও তার বইটির উপর এখনও বহাল রয়েছে নিষেধাজ্ঞা। 

উল্লেখ্য, ১৯৪৭ সাল বোম্বে শহরে (বর্তমান মুম্বাই) জন্ম সালমান রুশদির। ১৪ বছর বয়সে তিনি ইংল্যান্ড চলে যান। রাগবি শহরের একটি স্কুলে ভর্তি হন। পরে কেমব্রিজের কিংস কলেজ থেকে ইতিহাসে স্নাতক (সম্মান) ডিগ্রি অর্জন করেন তিনি। এরপর ব্রিটিশ নাগরিকত্বও অর্জন করেন রুশদি। 


একাত্তর/আরবিএস 

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছাদ খোলা অভিবাদন!

ছাদ খোলা অভিবাদন!

৬ দিন ২২ ঘন্টা আগে