ঢাকা ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১ আশ্বিন ১৪২৯

বরগুনা জেলা ছাত্রলীগকে অবাঞ্ছিত, সমর্থকদের উলঙ্গের ঘোষণা

নিজস্ব প্রতিনিধি, বরগুনা
প্রকাশ: ১৭ আগষ্ট ২০২২ ১০:২৩:৪৬ আপডেট: ১৭ আগষ্ট ২০২২ ১২:০৯:২৩
বরগুনা জেলা ছাত্রলীগকে অবাঞ্ছিত, সমর্থকদের উলঙ্গের ঘোষণা

বরগুনা জেলার ছাত্রলীগের নতুন কমিটিকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেছে জেলা আওয়ামী লীগ। একই সঙ্গে যারা ওই কমিটিকে সমর্থন করবে তাদের উলঙ্গ করে দেওয়ার হুমকিও দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) রাত আটটায় এক  সমাবেশে এ ঘোষণা দেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর কবির। এবং উলঙ্গ করে দেওয়ার হুমকি দেন বরগুনা-১ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাড. ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু।

জাহাঙ্গীর কবির বলেন, লাখ লাখ টাকার বিনিময়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ কোনো কাউন্সিল ছাড়া বরগুনা জেলা ছাত্রলীগের কমিটি দিয়েছে। এই কমিটিকে জেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ কেউ সহায়তা করবে না। মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের বাদ দিয়ে কমিটি দেয়া হয়েছে। এই কমিটি বাতিল করতে হবে।

তিনি বলেন, এই নতুন পদ পাওয়া সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তি। নতুন কমিটিকে আমরা অবাঞ্ছিত ঘোষণা করলাম।

ওই সমাবেশে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বরগুনা-১ আসনের সংসদ সদস্য এডভোকেট ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু বলেন, জেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটিকে যারা সমর্থন করবে তাদের উলঙ্গ করে দেওয়া হবে। 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বরগুনা জেলার ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল কবির রেজা মুঠো ফোনে বলেন, জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দের এমন কোনো বক্তব্য আমাদের জানা নেই।  

এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বিল্লাল হোসেন বিদ্যুৎ বলেন, জেলা আওয়ামী লীগের এমন কোনো বক্তব্য আমাদের নজরে আসেনি। আজ কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি সাধারণ সম্পাদক একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন। আমি সেই তদন্ত কমিটির প্রধান। আমরা তদন্ত করে সার্বিক সব বিষয় তুলে ধরবো।

আরও পড়ুন: সিরিজ বোমা হামলা: অনেক মামলা এখনও ঝুলছে নিম্ন আদালতে

প্রসঙ্গত, সোমবার (১৫ আগস্ট) দুপুরে বঙ্গবন্ধুর শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি কমপ্লেক্সে হাজার অধিক ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের নিয়ে ফুল দিতে যান জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক।

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে ফেরার সময় শিল্পকলা অ্যাকাডেমির সামনে পৌঁছালে ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত নেতা সবুজ মোল্লার গ্রুপের সদস্যরা তাদের ওপর হামলা চালান। এতে দুই গ্রুপের নেতা-কর্মীরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। পুলিশ থামাতে গেলে পুলিশের একটি গাড়ি ভাঙচুর হয়।

এ সময় পুলিশ লাঠিচার্জ করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে শহরজুড়ে থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। গুরুত্বপূর্ণ স্থানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এর আগে দীর্ঘ আট বছর পর গত ১৭ জুলাই বরগুনা শহরের সিরাজ উদ্দীন টাউন হল মিলনায়তনে বরগুনা জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ২৪ জুলাই রাতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক জেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটির অনুমোদন দেন।

এতে জেলা কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ৩৩ সদস্যের নাম প্রকাশ করা হয়। এরপর থেকেই সদ্য ঘোষিত এ কমিটি প্রত্যাখ্যান করে বরগুনা শহরে পদবঞ্চিতরা প্রতিবাদ জানাতে থাকেন।


একাত্তর/এসি

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছাদ খোলা অভিবাদন!

ছাদ খোলা অভিবাদন!

৫ দিন ১ ঘন্টা আগে