ঢাকা ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১ আশ্বিন ১৪২৯

অর্ধশতাব্দি পর চাঁদে ফিরতে প্রস্তুত নাসা

একাত্তর অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশ: ১৭ আগষ্ট ২০২২ ১৫:৫৮:৫৪ আপডেট: ১৭ আগষ্ট ২০২২ ১৭:৩৩:২৬
অর্ধশতাব্দি পর চাঁদে ফিরতে প্রস্তুত নাসা

চাঁদে মানুষ পাঠানোর ঠিক অর্ধশতাব্দি পর আবারও চাঁদের বুকে রকেট পাঠাতে চলেছে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা। আগামী ২৯ আগস্ট ফ্লোরিডার কেনেডি স্পেস সেন্টার থেকে চাঁদের দিকে উড়াল দেবে আরটেমিস ১ নামের একটি নতুন রকেট। 

তবে এখনই সেটি চাঁদের বুকে অবতরণ করবে না। সেজন্য অপেক্ষা করতে হবে ২০২৪ সাল পর্যন্ত, যখন এই মিশনের দ্বিতীয় রকেটট আরটেমিস ২-কে চাঁদে পাঠানো হবে।

এরপর ২০২৫ সালে তৃতীয় যাত্রায় নভোচারীদের নিয়েই চাঁদে যাবে আরটেমিস প্রোগ্রামের তৃতীয় মিশন আরটেমিস ৩।  

স্পেস লঞ্চ সিস্টেম (এসএলএস) নামে পরিচিত আরটেমিস ১ রকেটটিকে উড্ডয়নের জন্য কেনেডি স্পেস সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। 

আরটেমিস ১-এর কাজ হবে নভোচারীদের বহনের জন্য তৈরি ওরায়ন ক্যাপসুলটিকে চাঁদের চারদিকে একবার প্রদক্ষিণ করানো। এরপর সেটি পৃথিবীতে ফিরে এসে প্রশান্ত মহাসাগরে আছড়ে পড়বে। বায়ুমণ্ডলে প্রবেশ করার সময় ওরায়ন অতিরিক্ত তাপমাত্রা সহ্য করতে পারবে কিনা সেটি পরীক্ষা করাও এই যাত্রার উদ্দেশ্য। 

নাসার প্রশাসক বিল নেলসন বলেন, 'আমরা যারা চাঁদের দিকে তাকিয়ে সেখানে ফিরে যাওয়ার স্বপ্ন দেখি তাদেরকে বলছি- আমরা চলে এসেছি! আর সেই যাত্রার শুরু হচ্ছে আরটেমিস ১-এর সাথে।' 

আরটেমিস ৩ মিশনের মাধ্যমে প্রথমবারের মতো কোনো নারী চাঁদের বুকে পা রাখবেন বলে আশা করছে নাসা। 


আরটেমিস প্রোগ্রামের নাম রাখা হয়েছে প্রথমবারের মতো চাঁদে মানুষ নিয়ে যাওয়া অ্যাপোলো প্রোগ্রামের সাথে সামঞ্জস্য রেখে। গ্রিক পুরাণ অনুযায়ী, দেবী আরটেমিস ছিলেন দেবতা অ্যাপোলোর যমজ বোন ও চাঁদের দেবী। 

২০৩০ সালের পরপরই মঙ্গলে মানুষ পাঠানোর প্রস্তুতি হিসেবে চাঁদে মানুষ পাঠাচ্ছে নাসা। 

আরও পড়ুন: আফ্রিকার উদ্দেশে ইউক্রেন ছাড়ল জাতিসংঘের জাহাজ

এসএলএস-এর ক্ষমতা অ্যাপোলোর স্যাটার্ন ভি রকেটের চেয়ে অনেক বেশি। এটি নভোচারীদের শুধু অনেক বেশি দূরের গন্তব্যেই নিয়ে যেতে পারবে না, সেইসাথে এতে বহন করা যাবে আরও বেশি যন্ত্রপাতি ও সরঞ্জাম যার ফলে নভোচারীরা অনেক বেশি সময় মহাকাশে অবস্থান করতে পারবেন। 

উড্ডয়নের জন্য তিনটি সম্ভাব্য তারিখ ঠিক করা হয়েছে। ২৯ আগস্ট প্রথমবারের মতো রকেটটিকে উড্ডয়নের চেষ্টা করা হবে। কারিগরি ত্রুটি বা খারাপ আবহাওয়ার কারণে তা সম্ভব না হলে পরে ২ সেপ্টেম্বর ও ৫ সেপ্টেম্বর আবারও চেষ্টা করা হবে। 


একাত্তর/এসজে 

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন