ঢাকা ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

ইউক্রেনের চার অঞ্চলকে রাশিয়ার বলে ঘোষণা করলেন পুতিন

একাত্তর অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশ: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৮:৫০:২০ আপডেট: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৮:৫৯:৫০
ইউক্রেনের চার অঞ্চলকে রাশিয়ার বলে ঘোষণা করলেন পুতিন

ইউক্রেনের  লুহানস্ক, দোনেৎস্ক, জাপোরিজ্জিয়া ও খেরসন অঞ্চলকে আনুষ্ঠানিকভাবে রাশিয়ার অংশ বলে ঘোষণা করেছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। 

শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) ক্রেমলিনের সেন্ট জর্জ হলে এক অনুষ্ঠানে এ ঘোষণা দেন তিনি। এসময় তিনি বলেন, ইউক্রেনের ওইসব অঞ্চলের বাসিন্দারা তাদের সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন। 

'আমি নিশ্চিত ফেডারেল অ্যাসেম্বলি রাশিয়ান ফেডারেশনের শাসনাধীন নতুন চার অঞ্চলকে সমর্থন করবে...কেননা এটি লাখ লাখ মানুষের ইচ্ছা', বিপুল করতালির মধ্যে বলেন তিনি। 

ইউক্রেনের অনুষ্ঠিত গণভোটের ব্যাপারে তিনি বলেন, 'ফল সবার জানা, খুব ভালোভাবেই জানা'। এই ফলকে ভোটদানকারীদের 'প্রাকৃতিক অধিকার' বলেন তিনি। 

এরপর ইতিহাসের কথা উল্লেখ করে পুতিন বলেন, এই জমির জন্য রাশিয়ার কয়েক প্রজন্ম যুদ্ধ করেছে। যুদ্ধে নিহত বীর সৈনিকদের শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করার আহবান জানান তিনি। 

তিনি বলেন, বিশেষ অভিযানের সময় সেনারা প্রাণ দিয়েছেন এবং তারা রাশিয়ার বীর। 

দখলকৃত চার অঞ্চলকে রাশিয়ার এলাকা দাবি করে ভ্লাদিমির পুতিন পশ্চিমাদের বিরুদ্ধে রাশিয়াকে দমনের চেষ্টা করার অভিযোগ করেন। 

সোভিয়েত ইউনিয়নের পতনের পর থেকেই পশ্চিমারা রাশিয়াকে পরাভূত করার চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। নতুন মুদ্রা ও প্রযুক্তির মাধ্যমে তারা রাশিয়াকে নিয়ন্ত্রণ করতে চায় বলেও তার অভিযোগ। 

রাশিয়ার বিপুল প্রাকৃতিক সম্পদের কোথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, পৃথিবীতে এতো ধনী একটি দেশের অস্তিত্ব আছে এটি পশ্চিমারা সহ্য করতে পারে না। তারা শুধু নিজেরা লাভ করতে চায়। 'লোভী' পশ্চিমা বিশ্ব রাশিয়াকে 'উপনিবেশ' বানাতে চায় বলেও অভিযোগ করেন তিনি। 

এর আগে লুহানস্ক, দোনেৎস্ক, জাপোরিজ্জিয়া ও খেরসনের রাশিয়ায় যোগদানের ব্যাপারে ইউক্রেনে গণভোটের আয়োজন করে রাশিয়া। সেখানে প্রায় ৯৯ শতাংশ মানুষ রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত হওয়ার পক্ষে রায় দিয়েছেন বলে দাবি মস্কোর।

তবে এই গণভোটকে অবৈধ দাবি করে আসছে পশ্চিমা বিশ্ব। ইউক্রেনের নাগরিকদের বন্দুকের মুখে ভোট দিতে বাধ্য করা হয়েছে বলে অভিযোগ তাদের। 

আরও পড়ুন: নর্ডস্ট্রিমে ছিদ্র রহস্য: কাকে দোষারোপ করা হচ্ছে এবং কেন?

পশ্চিমাদের অভিযোগ, ডনবাস অঞ্চলের দখল হারাতে থাকায় তড়িঘড়ি করে এই এই চার অঞ্চল দখল করতে চাইছে রাশিয়া। 

তবে ডনবাস অঞ্চলের সবাই চিরকালের জন্য রাশিয়ান নাগরিক হবে বলে অনুষ্ঠানে কিয়েভ ও পশ্চিমের প্রতি হুঁশিয়ারি দিয়েছেন পুতিন। রাশিয়ার সব নাগরিকের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে রাশিয়া সবকিছু করবে বলে প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। 


একাত্তর/এসজে

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন

Nagad Ads
ছাদ খোলা অভিবাদন!

ছাদ খোলা অভিবাদন!

২ মাস ৯ দিন আগে