ঢাকা ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২০ মাঘ ১৪২৯

ইউক্রেনের বিরুদ্ধে রুশ যুদ্ধবন্দিদের হত্যার অভিযোগ

একাত্তর অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশ: ১৯ নভেম্বর ২০২২ ১৩:৩৯:০৩
ইউক্রেনের বিরুদ্ধে রুশ যুদ্ধবন্দিদের হত্যার অভিযোগ

ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলে সৈন্যদেরকে গুলি করে হত্যার একটি ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়ার পর রাশিয়া অভিযোগ করেছে, যুদ্ধবন্দি রুশ সেনাদের হত্যা করছে ইউক্রেন। 

শনিবার (১৯ নভেম্বর) বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভিডিওটির সত্যতা এখনও নিশ্চিত করা না গেলেও সেখানে আসলে কী হয়েছিলো তা জানার চেষ্টা করছে তারা। 

বিবিসি বলছে, ভিডিওটি গত শনিবার (১২ নভেম্বর) বা তার আগে ইউক্রেনের লুহানস্ক অঞ্চলের মাকিয়িভকা গ্রামে ধারণ করা হয়েছে। 

গত শনি ও রোববার ইউক্রেনপন্থী বিভিন্ন ওয়েবসাইটে কিছু ড্রোন ফুটেজ প্রকাশিত হয়, যেখানে দেখা যাচ্ছে একটি খামারের উঠানে ইউনিফর্ম পরিহিত সৈন্যদের মরদেহ পড়ে রয়েছে। 

ইউক্রেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রকাশিত মাকিয়িভকায় সামরিক অভিযানের ভিডিওতেও এই ফুটেজটি দেখা গেছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কিছু পোস্টে বলা হয়েছে, মর্টার আক্রমণের ফলে এ ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। 

তবে রাশিয়াপন্থী কিছু আউটলেট দাবি করেছে অন্য কথা। ইউক্রেনের ৮০তম বিমান হামলা ব্রিগেডের সৈন্যরা গুলি করে ওই সৈন্যদের হত্যা করেছে বলে দাবি তাদের। তবে এখন পর্যন্ত এ ব্যাপারে কোনও মন্তব্য করেনি ইউক্রেন। 

পরে বৃহস্পতিবার (১৭ নভেম্বর) আরও একটি ভিডিও ফুটেজ প্রকাশিত হয়, যেটি ঘটনাস্থলে উপস্থিত কেউ ধারণ করেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। 

ভিডিওতে শোনা যায়, ইউক্রেনীয় ভাষায় কেউ একজন শেডের ভেতরে লুকিয়ে থাকা সবাইকে বের হয়ে আসার আহবান জানাচ্ছে। এরপর একে একে সব সৈন্যরা বের হয়ে মাটিতে শুয়ে পড়েন। 

ভিডিওতে আরও দেখা যায়, যারা বের হয়ে আসছেন তাদের পরনের ইউনিফর্ম দেখতে রাশিয়ান, আর যারা বের হয়ে আসতে বলছেন তারা ইউক্রেনীয় ভাষায় কথা বলছেন। 


কিছুক্ষণ পর কালো পোশাক পরিহিত একজন ব্যক্তি বের হয়ে এলোপাথাড়ি গুলি চালাতে শুরু করেন। তবে তিনি কোন দেশি আর কীসের দিকে গুলি চালাচ্ছেন তা বোঝা যায়নি। 

এরপর ক্যামেরাটি মাটিতে পড়ে যাওয়ায় আর কিছু যায়নি। তবে ড্রোন ফুটেজ ও ক্যামেরায় ধারণ করা ভিডিও একই স্থানের বলে ধারণা করা হচ্ছে। 

আরও পড়ুন: মেয়েকে নিয়ে মিসাইল উৎক্ষেপণ দেখলেন কিম জং-উন

এ ঘটনাকে 'উদ্দেশ্যপূর্ণ ও সুশৃঙ্খল হত্যাকাণ্ড' হিসেবে আখ্যা দিয়ে এর নিন্দা জানিয়েছে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এটি ইউক্রেনের সেনাবাহিনী কর্তৃক 'প্রথম এবং একমাত্র যুদ্ধাপরাধ' নয় বলেও অভিযোগ তাদের। 

যুদ্ধে আত্মসমর্পণকারী সৈন্যদের হত্যা বা আঘাত করাকে যুদ্ধাপরাধ হিসেবে বিবেচনা করা হয়। ইউক্রেনে বেশ কিছু যুদ্ধাপরাধ করার অভিযোগ রয়েছে রাশিয়ার বিরুদ্ধে। 


একাত্তর/এসজে

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন

Nagad Ads