ঢাকা ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২১ মাঘ ১৪২৯

সাউন্ড গ্রেনেড ছুড়ে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপকে ছত্রভঙ্গ

নিজস্ব প্রতিনিধি, লালমনিরহাট
প্রকাশ: ২৬ নভেম্বর ২০২২ ২০:৪৬:২৩ আপডেট: ২৬ নভেম্বর ২০২২ ২১:০৬:৪৫
সাউন্ড গ্রেনেড ছুড়ে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপকে ছত্রভঙ্গ

লালমনিরহাটে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া এবং সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে পুলিশসহ গ্রুপ দুটির অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে পুলিশ শেষ পর্যন্ত তিনটি সাউন্ড গ্রেনেড ছোড়ে।

শনিবার (২৬ নভেম্বর) বিকেলে জেলার আদিতমারী উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে। বর্তমানে উপজেলা শহরটিতে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। 

স্থানীয়রা জানান, শনিবার আদিতমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের সদ্য ঘোষিত নবনির্বাচিত নেতৃবৃন্দ উপজেলার জিএস স্কুলের মাঠে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল আয়োজন করে। একই সময়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের পদ বঞ্চিত নেতারা উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে সমাবেশে ডাকে। উভয় পক্ষের পাল্টাপাল্টি সমাবেশের ডাকে সকাল থেকে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছিলো। 

নব নির্বাচিত কমিটির সভাপতি, সম্পাদক, সাংগঠনিক সম্পাদকসহ অন্য নেতাদের নেতৃত্ব দেওয়া সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল উপজেলা শহরের মূল সড়ক প্রদক্ষিণ করতে বের হয়। মিছিলটি উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয় অতিক্রম করার সময় সেখানে অবস্থান নেওয়া গ্রুপের সঙ্গে বাকবিতণ্ডা হয়। পরে উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে পেছন থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তিরা মিছিলকে লক্ষ্য করে ঢিল ছোড়ে। এতে মিছিল ও আশপাশে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এতে মিছিলটি ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়।

এরপর মিছিল ছুট নেতাকর্মীরা সংঘবদ্ধ হয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেওয়া গ্রুপের সঙ্গে থেমে থেমে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এসময় দু গ্রুপ ঢিল ছোড়ে এবং দেশীয় অস্ত্র প্রদর্শন করে। 


পুলিশের টানা দুই ঘণ্টার চেষ্টায়ও যখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসছিলনা তখন পুলিশ বৃহৎ সংঘর্ষ এড়াতে তিনটি সাউন্ড গ্রেনেডের বিস্ফোরণ ঘটায়। এতে উভয় পক্ষের নেতাকর্মীরা সরে যায়। 

আরও পড়ুন: সময় থাকতে কেটে পড়ুন, সরকারকে ফখরুল

এ বিষয়ে আদিতমারী থানার অফিসার ইনচার্জ মোক্তারুল ইসলাম জানান, আদিতমারী আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে পুলিশের ৫/৬  সদস্যসহ উভয় পক্ষের কয়েকজন আহত হয়েছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে তিনটি সাউন্ড গ্রেনেড ছোড়া হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

উল্লেখ, চলতি বছরের গত ১৯ নভেম্বর উপজেলা আওয়ামী লীগের মোহাম্মদ আলীকে সভাপতি ও রফিকুল আলমকে সাধারণ সম্পাদকসহ উপজেলা আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়। ঘোষিত কমিটিতে সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী মাহমুদ ওমর চিশতী পদ না পেয়ে কমিটি ঘোষণার পর থেকে নব নির্বাচিত কমিটির বিরোধিতা করে আসছেন।


একাত্তর/এসি

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন

Nagad Ads