ঢাকা ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২১ মাঘ ১৪২৯

ড্র করে বিদায় বেলজিয়ামের, শেষ ষোলোয় ক্রোয়েশিয়া

একাত্তর অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশ: ০১ ডিসেম্বর ২০২২ ২৩:১৭:৩৬ আপডেট: ০২ ডিসেম্বর ২০২২ ০০:৪৩:০৩
ড্র করে বিদায় বেলজিয়ামের, শেষ ষোলোয় ক্রোয়েশিয়া

বেলজিয়ামের কাছে ম্যাচটা ছিল মাস্ট উইন। অর্থাৎ জেতা ছাড়া দ্বিতীয় কোনও রাস্তা খোলা ছিল না। আর ক্রোয়েশিয়াকে কোনওভাবে হারলে চলবে না। এই পরস্থিতিতে বেলজিয়াম ও ক্রোয়েশিয়া নেমেছিল। দিনান্তে ক্রোয়েশিয়াও জিতল না, বেলজিয়ামও হারল না। কিন্তু ম্যাচ ড্র হওয়ায় বেলজিয়াম কাতার বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গেল। 

অন্য ম্যাচে মরক্কো ২-১ গোলে কানাডাকে হারিয়ে দেওয়ায় তারা গেল নকআউটে। গ্রুপ এফ থেকে নকআউট পর্বের পাসপোর্ট পেল ক্রোয়েশিয়া ও মরক্কো।  

বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) ম্যাচের প্রথমার্ধে বেলজিয়ামকে বিবর্ণ দেখালেও দ্বিতীয়ার্ধে লুকাকু নামার পরে প্রাণ ফেরে বেলজিয়াম শিবিরে। অবশ্য গোল করা ছাড়া দ্বিতীয় কোনও উপায় ছিল না বেলজিয়ামের। আর গোল করতে হলে রোমেলু লুকাকুকে নামাতেই হত। 

লুকাকু নামলেন, একাধিক বার ক্রোয়েশিয়ার গোলের কাছাকাছি পৌঁছলেন কিন্তু গোল করতে পারলেন না। তার শট ক্রোয়েশিয়ার পোস্টে লেগে ফিরে আসে। ডি ব্রুইনের সেন্টার থেকে হেডে ক্রোয়েশিয়ার জালে বল জড়াতে পারেননি লুকাকু। যদিও ডি ব্রুইন সেন্টার করার সময়ে বলটা টাচলাইনের বাইরে বেরিয়ে গিয়েছিল। 

খেলার শেষের দিকে লুকাকু হেডটাই ঠিকঠাক করতে পারলেন না। গোলগুলো হয়ে গেলে হয়তো মাথা নীচু করে মাঠ ছাড়তে হত না বেলজিয়ামকে। 

ম্যাচের ১৫ মিনিটে ফ্রি কিক পায় ক্রোয়েশিয়া। সেই ফ্রি কিক থেকে ফাউলের কারণে পেনাল্টি পায় ক্রোয়েশিয়া। তবে রেফারি পেনাল্টি চেক করে অফ সাইডের সিদ্ধান্ত দেন। ফলে আর গোলের দেখা পায় না ক্রোয়েশিয়া। এরপর ম্যাচের ১৮ মিনিটে ফের অ্যাটাকে যায় ক্রোয়েশিয়া। তবে গোল করতে ব্যর্থ হয় তারা। 

ম্যাচের ২০ মিনিটে আবারও আক্রমণে উঠে ক্রোয়েশিয়া। তবে সেখান থেকেও কোন গোল পায় না তারা। এর মাঝে বেশ কিছু আক্রমণ করে বেলজিয়াম। তবে তা থেকে সুবিধা করতে পারেনি তারা। অন্যদিকে ম্যাচের ৩২ মিনিটে কাউন্টার অ্যাটাকে যায়। ডি বক্সের বাইরে থেকে নেওয়া শট চলে যায় পোস্টের ওপর দিয়ে।

এরপর গোলের আশায় একাধিক আক্রমণ করে দু'দল। তবে শেষ পর্যন্ত গোল না হলে গোলশূন্য থেকে প্রথমার্ধ শেষ করে  ক্রোয়েশিয়া ও বেলজিয়াম।

বিরতি থেকে ফিরেই গোলের আশায় মরিয়া হয়ে খেলতে থাকে ক্রোয়েশিয়া ও বেলজিয়াম। ম্যাচের ৫৪ মিনিটে বল নিয়ে বেলজিয়ামের ডি বক্সে ঢুকে পোস্টে শট করেন লুকা মড্রিচ। তবে তা রুখে দেন গোলরক্ষক থিবো কোর্তোয়া। এরপর আবারও গোলমুখে শট করলে আবারো সেভ করেন কোর্তোয়া। 

আরও পড়ুন: ৩৬ বছর পর বিশ্বকাপের শেষ ষোলোতে মরক্কো

ম্যাচের ৮০ মিনিটে বাম দিক থেকে আক্রমণে যায় ক্রোয়েশিয়া। ডি বক্সে ঢুকে বল ক্রস করলেও সেখানে কেউ না থাকায় আর গোল পাওয়া হয় না। ম্যাচের ৮৪ মিনিতে কর্নারে আদায় করে বেলজিয়াম। ডি ব্রুইনার নেওয়া কর্নার থেকে হেড করলেও তা কোন বিপদ ঘটাতে পারেনি। ম্যাচের ৯০ মিনিটে ম্যাচের সবচেয়ে সহজ সুযোগ নষ্ট করে লুকাকু। ডান দিক থেকে বাড়ানো বলে ফাঁকা পোস্টে বল জালে জড়াতে পারেননি তিনি। 

শেষ পর্যন্ত আর কোন গোল না হলে গোলশূন্য ড্র করে মাঠ ছাড়ে দু'দল। এই ড্র এর ফলে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিলো বেলজিয়াম। আর গ্রুপ রানার আপ হয়ে নক আউট পর্বে পা রাখলো ক্রোয়েশিয়া। 


একাত্তর/এসজে

মন্তব্য

এই নিবন্ধটি জন্য কোন মন্তব্য নেই.

আপনার মন্তব্য লিখুন

Nagad Ads