সেকশন

মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
 

নির্বাচনে অংশ নেবে মিছবাহুরের ইসলামী ঐক্যজোট

আপডেট : ২৩ নভেম্বর ২০২৩, ০৬:৩২ পিএম

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেবে বাংলাদেশ ইসলামী ঐক্যজোট। তবে দলটির নিবন্ধন না থাকায় কোনো অধীনে বা স্বতন্ত্রভাবে নির্বাচন করবে কি না সে বিষয়ে এখনও সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি তারা। 

বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মিছবাহুর রহমান চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশ ইসলামী ঐক্যজোট এবার নির্বাচনে অংশ নেবে। তবে আমাদের দল এখনো নির্বাচন কমিশনে নিবন্ধিত নয়। যার কারণে আমাদের দলীয় কোনো প্রতীক নেই। তাই আমরা কীভাবে নির্বাচন করবো সেই বিষয়ে এখনো সিদ্ধান্ত নেইনি।

জাতীয় সংসদ নির্বাচন, নির্বাচনকালীন পরিবেশ পরিস্থিতি, ঘোষিত তফসিল এবং বাংলাদেশ ইসলামী ঐক্যজোটের নির্বাচনে অংশ নেওয়ার পদ্ধতি ও পরিকল্পনা জানাতে ওই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে জোটের চেয়ারম্যান মিছবাহুর রহমান চৌধুরী বলেন, আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন মহাজোট প্রতিষ্ঠার পর থেকে আমাদের দল মহাজোটের অন্যতম অংশীদার ছিলো। ইতোপূর্বে বাংলাদেশ ইসলামী ঐক্যজোট কোনো নির্বাচনে অংশ নেয়নি। তবে আওয়ামী লীগ এবং তার দলীয় প্রধানের প্রতিটি দুর্দিনে আমরা পাশে ছিলাম এবং থাকবো। তবে সরকারের দোষ ত্রুটি সমালোচনা করতে আমরা কখনোই ছাড় দেই না।’

তিনি আরও বলেন, বিএনপিকে অবশ্যই নির্বাচনে আসা উচিত। বিএনপি নির্বাচনে না আসলে যত ভালো বা নিরপেক্ষ নির্বাচনই হোক না কেন সেটা প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক হবে না।

আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটের অধীনে বাংলাদেশ ইসলামী ঐক্যজোট নির্বাচনে যাবে কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা এখনও এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেইনি। আমরা মহাজোটের অধীনে নির্বাচনে যেতে পারি, অথবা মহাজোটের শরিক দলগুলোর প্রতীকে নির্বাচনে যেতে পারি, কিংবা স্বতন্ত্রভাবেও নির্বাচনে যেতে পারি।

বাংলাদেশ ইসলামী ঐক্যজোট কতগুলো আসনে প্রার্থী দেবে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা এখন ৪০ থেকে ৪৫টি আসনে প্রার্থী দিতে প্রস্তুত।

লিখিত বক্তব্যে মিছবাহুর বলেন, যারা বর্তমান সরকারের উন্নয়ন, কর্মকাণ্ডকে সমর্থন জুগিয়েছে, যারা গণতান্ত্রিক ধারা বহাল রাখার পক্ষে মত পোষণ করেছেন, তারা সকলেই চান একটি সুষ্ঠু নিরপেক্ষ অংশগ্রহণ ও প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক নির্বাচনের মাধ্যমে শেখ হাসিনা আবার সরকার গঠন করে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখুক। অন্যদিকে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম রাজনৈতিক দল ও তাদের মিত্ররা নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করে সাম্রাজ্যবাদীদের সঙ্গে আঁতাত করছে।’

তিনি বলেন, তারা নানাভাবে নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে চাচ্ছে। দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্য, কোনোভাবেই সরকারি দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপি আলোচনার মাধ্যমে একটি সমাধানের পথ খুঁজে বের করতে পারেনি। আমরা মনে করি, বিএনপি যুক্তরাষ্ট্রের ওপর অতিমাত্রায় নির্ভরশীল হয়ে তাদের সহযোগিতায় সরকারের পতন ঘটাতে চাচ্ছে। যে কারণে এই বিশাল রাজনৈতিক দলটির আন্দোলন বারবার ব্যর্থ হয়েছে।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ইসলামী ঐক্যজোটের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা আব্দুর রহিম হাজারী, যুগ্ম মহাসচিব মুফতি শহিদুল ইসলাম, যুগ্ম মহাসচিব আসাদুজ্জামান খান, সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতি বোরহান উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক মোশাররফ হোসেন মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতি মাওলান তাজুল ইসলামসহ অন্যরা।

কেএসএইচ
দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রায় তিন কোটি টাকা খরচ করেছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ অনুযায়ী, দলটির সর্বোচ্চ সাড়ে চার কোটি টাকা ব্যয় করার সুযোগ ছিলো।
দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাই সবচেয়ে বেশি অনলাইন বুলিইংয়ের শিকার হয়েছেন।
দেশি-বিদেশি চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচন হলেও মানুষের অনাস্থা দূর করা যায়নি বলে মন্তব্য করেছেন ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন।
মেডিকেল ও পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শীর্ষ পদধারীদের নৈতিকতা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ।
ঘূর্ণিঝড় রিমালের প্রভাবে সারাদেশে এখনও ৪৫ শতাংশ মোবাইল সাইট অসচল রয়েছে বলে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন-বিটিআরসি।
জেলা প্রশাসক (ডিসি) ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের (ইউএনও) জন্য নতুন গাড়ি কেনা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন মন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।
ঘূর্ণিঝড় দুর্গত এলাকা পরিদর্শনে বৃহস্পতিবার পটুয়াখালী যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
ঘূর্ণিঝড় রিমালের তাণ্ডবে সুন্দরবনে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে। এরইমধ্যে ২৬টি মৃত হরিণ উদ্ধার করেছে বন বিভাগ।
লোডিং...
Nagad Ads
সর্বশেষপঠিত

এলাকার খবর


© ২০২৪ প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত