সেকশন

শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
 

গরমে তৈরি হচ্ছে মানবকিতার উদাহারণও

আপডেট : ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:৪৪ পিএম

যেকোন দুর্যোগে মানুষই দাঁড়ায় মানুষের পাশে। এবারো চলমান তাপদাহে দুঃসহ পরিস্থিতিতে তৈরি হচ্ছে মানবকিতার উদাহারণ। 

পথ-চলতি মানুষের তৃষ্ণা মেটাতে রাজধানীর মোড়ে-মোড়ে খাবার ও পানির ব্যবস্থা করেছে বিভিন্ন সংস্থা ও সংগঠন। আবার, শ্রমজীবী মানুষ ও পথচারীদের জন্য অনেকেই বাসা-বাড়ির সামনে রেখেছেন পানি ও খাবারের ব্যবস্থা। 

মধ্যদুপুরে গুলশানের পথে ছুটে চলতে দেখা যাচ্ছে কালো রঙা একটা গাড়ি। প্রচন্ড তাপদাহের মধ্যে তৃষ্ণার্ত-শ্রমজীবী মানুষের ভিড়ের কাছে থামছে গাড়িটি। জানালা দিয়ে সবার হাতে তুলে দেয়া হচ্ছে ঠান্ডা পানি বা কোমল পানীয়। 

গুলশানের বাসিন্দা রিজিক ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সিনথিয়া তার বাসার সামনে বসিয়েছেন পানির জার। পথ চলতি মানুষ পাচ্ছেন ঠাণ্ডা পানি। সিনথিয়ার এই উদ্যোগ নিম্ন আয়ের মানুষদের কিছুটা হলেও স্বস্তি দিচ্ছে। 

গুলশানেরই আরেক বাসার সামনে মাটির কলসি রাখা। রিকশাচালক থেকে শুরু করে পথ চলতি মানুষ সেই কলসি থেকে তৃষ্ষা মেটাচ্ছেন। দিনে দুই বেলা করে শরবতও বিতরণ করছেন বাড়ির মালিক। 

এই শহরে এখন আর কিনে খাওয়া ছাড়া বিশুদ্ধ পানির কোন উৎস নেই। আধা লিটার পানির দাম বিশ টাকা। যা কেনার সাধ্য অনেকেরই নেই। 

ব্যাক্তি উদ্যোগ ছাড়াও রাজধানীর ব্যস্ত পয়েন্টগুলোতে খাবার পানির ব্যবস্থা করেছে ওয়াসা, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ ও সিটি কর্পোরেশন। পানির জার বসিয়ে পথচারীদের তৃষ্ণা নিবারণের উদ্যোগ নিয়েছেন তারা। 

ছোট ছোট এই উদ্যোগগুলো দেশজুড়ে ছড়িয়ে পড়া দরকার। তাপদাহের এই সময়ে সামর্থ্যবানরা খাবার পানি, স্যালাইন কিংবা গ্লুকোজ নিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছে নগরবাসী। 

 

এআর
সাম্প্রতিক সময়ের তীব্র তাপপ্রবাহকে পুঁজি করে জমে উঠেছিলো নকল স্যালাইনের ব্যবসা৷ গত এক সপ্তাহে অভিযান চালিয়ে এমন একাধিক নকল স্যালাইন কারখানার সন্ধান পেয়েছে গোয়েন্দা পুলিশ, গ্রেপ্তার করা হয়েছে ছয়জনকে। 
রাজধানীতে আরেক দফা বাড়লো তাপদাহ। বুধবার ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিলো ৩৯ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আবহাওয়ার পূর্বাভাস বলছে, সহসা এ পরিস্থিতি থেকে মুক্তি মিলবে না। 
রহস্যজনক ও নৃশংস হত্যাকাণ্ডের শিকার তিনবারের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনারের পুরো মরদেহ পাওয়ার আশা নেই। তবে, দেহাবশেষ উদ্ধারে অভিযান চালাচ্ছে সিআইডির টিম উদ্ধার ও স্থানীয় থানা পুলিশ।
হার দিয়ে শুরু হওয়ায় শঙ্কা ছিলো সিরিজ খোয়ানোর। সিরিজে টিকে থাকতে এই ম্যাচের জয়ের বিকল্প ছিলো না। তবে শঙ্কাই সত্যি হলো। সিরিজ হারলো বাংলাদেশ।
নব্বইয়ের দশকের অত্যন্ত জনপ্রিয় ও আলোচিত জুটি সঞ্জয় দত্ত ও মাধুরী দীক্ষিত। তাদের প্রেম পর্দা থেকে গড়িয়েছিল বাস্তব জীবনে। এর পর বিচ্ছেদ, বিতর্ক আর অভিযোগের পাহাড়ে যেন তারা চাপা পড়ে যান। বিচ্ছেদের পর...
জন্মস্থান মাশহাদে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় নিহত ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি। কয়েকদিনের আনুষ্ঠানিকতা শেষে বৃহস্পতিবার ইরানের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় এই শহরে ইমাম আলী আল-রেজার...
লোডিং...
Nagad Ads
সর্বশেষপঠিত

এলাকার খবর


© ২০২৪ প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত