সেকশন

মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
 

ফরিদপুর-৪: আলোচনায় দুই হেভিওয়েট নেতার দ্বন্দ্ব 

আপডেট : ০৬ নভেম্বর ২০২৩, ০৬:৪৮ পিএম

ভাঙ্গা, সদরপুর ও চরভদ্রাসন উপজেলা নিয়ে গঠিত ফরিদপুর-৪ আসনে আওয়ামী ঘরানার দুই প্রভাবশালী নেতার টানাহেঁচড়া চলছে এক দশক ধরে। এ নিয়ে সৃষ্ট গ্রুপিংয়ের প্রভাব পড়েছে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মী সমর্থদের মধ্যে। আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী প্রেসিডিয়াম মেম্বার কাজী জাফর উল্লাহর দুর্গে ২০১২ সালে হানা দেয় পাশের জেলা মাদারীপুরের প্রভাবশালী রাজনীতিক পরিবারের (চৌধুরী ইলিয়াস আহমেদ) সন্তান ও বঙ্গবন্ধুর দৌহিত্র চৌধুরী মুজিবুর রহমান নিক্সন। 

স্বতন্ত্র নির্বাচন করে ওই বছরেই সংসদ সদস্য নির্বাচন হন তিনি। এরপর থেকে আসনটি তার দখলে রয়েছে। আসনটি ফিরে পেতে মরিয়া কাজী জাফরউল্লাহ আর স্বতন্ত্র থেকে ধরে রাখতে বদ্ধ পরিকর মুজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন। আওয়ামী লীগের ভোট ভাগ হবে প্রত্যাশা করে সেই সুযোগ নিতে চায় বিএনপি। তারা মনে করেন জনগণের মধ্যে পরিবর্তনের প্রত্যাশা আর আওয়ামী লীগের গ্রুপিং বিজয় আনবে বিএনপি প্রার্থীর।

পদ্মা সেতুর বদৌলতে এক্সপ্রেসওয়ে, রেলওয়েসহ নানা উন্নয়নের হাওয়ায় ভাসছে ভাঙ্গা। তাই সেখানে এবার ভোটের উচ্ছ্বাস বেশি। বাসিন্দারা বলছেন, আাগে ঢাকায় যেতে ছয় থেকে আট ঘণ্টা লাগতো। এখন সময় লাগে এক ঘণ্টা ১০ মিনিট। ভোটাররা আরও জানান, এসব উন্নয়ন ছাড়াও সদরপুর ও চরভদ্রাসনের নদী ভাঙন বন্ধ হওয়ায় তারা ঝুঁকিমুক্ত। ফলে এই এলাকার মানুষের অনেক সংকটই কেটে গেছে।

ফরিদপুর-৪: আলোচনায় দুই হেভিওয়েট নেতার দ্বন্দ্ব, ছবি: একাত্তর
 
তারা আরও বলছেন, এসব উন্নয়নের ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে আসনটির বেশিরভাগ এলাকায়। মানুষ কাজ পেয়েছে। বেড়েছে জমির দাম। এত উন্নয়নে ভোটের বাতাস নৌকার পালে লাগলেও মনোনয়ন নিয়ে ব্যাপক দ্বন্দ্ব রয়েছে এই আসনে। এই আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য যু্বলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মুজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন। যদিও তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে হারিয়েছিলেন যুবলীগের আরেক প্রেসিডিয়াম সদস্য জাফর উল্লাহকে। এবারো তাদের সেই দ্বন্দ্ব থাকবে বলে মনে করেন ভোটাররা। 

কাজী জাফরউল্লাহ আওয়ামী লীগের একজন প্রবীণ প্রেসিডিয়াম সদস্য। ইতিমধ্যেই মনোনয়নপ্রত্যাশী হিসাবে এলাকায় প্রচার-চালাচ্ছেন তিনি। ফরিদপুর-৪ আসনে আওয়ামী লীগের হয়ে কাজী জাফরউল্লাহরই মনোনয়ন পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি বলে ধারণা করা হয়। তবে আরেকটি পক্ষ মনে করছেন দুবার বিশাল ব্যবধানে মজিবুর রহমান নিক্সন চৌধুরীর কাছে হেভিওয়েট প্রার্থী কাজী জাফরউল্লার পরাজয় বরণ করায় এবার নৌকার কান্ডারি হবেন নিক্সন চৌধুরীই।

অন্যদিকে ফরিদপুর-৪ আসনে বিএনপির রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড পরিচালিত হচ্ছে অনেকটা নীরবভাবে। ভাঙ্গা উপজেলা বিএনপির সভাপতি খন্দকার ইকবাল হোসেন সেলিম গত নির্বাচনে বিএনপি থেকে মনোনয়ন পেয়েছিলেন। কিন্তু আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র প্রার্থীর কাছে পরাজয় বরণ করেন। 

ফরিদপুর-৪: আলোচনায় দুই হেভিওয়েট নেতার দ্বন্দ্ব, ছবি: একাত্তর

তবে এবার আওয়ামী লীগের দলীয় কোন্দলকে কাজে লাগিয়ে এ আসন নিজের দখলে নিতে চায় বিএনপি। যে কারণে এবার অনেকটা কৌশলী হয়ে নির্বাচনি প্রচার চালাচ্ছে বিএনপি। বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা আলহাজ জহুরুল হক শাহজাদা মিয়া এবং জাতীয়তাবাদী কৃষক দলের কেন্দ্রীয় কমিটির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক আলগমীর কবির দলীয় মনোনয়ন বাগাতে প্রচার শুরু করেছেন।

নৌকার দুর্গ হিসেবে পরিচিত ফরিদপুর-৪ আসন। ৪ লাখ ৮৮ হাজার ৮৫৬ জন ভোটার নিয়ে গঠিত এই আসন। এটি জাতীয় সংসদের ২১৪ নম্বর আসন। এদের মধ্যে, পুরুষ ভোটার ২ লাখ ৫২ হাজার ৮৬২ জন এবং মহিলা ভোটারের সংখ্যা ২ লাখ ৩৫ হাজার ৯৯১।

 

বাংলাদেশে কর্মরত বৈধ-অবৈধ বিদেশি কর্মীদের তালিকা চেয়েছেন হাইকোর্ট। আগামী তিন মাসের মধ্যে এই তালিকা জমা দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। 
তৃতীয় ধাপে ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিভাগের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪৬ হাজার শিক্ষক নিয়োগের কার্যক্রম ছয় মাসের জন্য স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনা তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।
চিকিৎসার জন্য ভারতে এসেছিেলেন বাংলাদেশের ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার। পশ্চিমবঙ্গ ও ঢাকার পুলিশের পক্ষ থেকে দাবি করা হচ্ছে, কলকাতার নিউটাউন এলাকার একটি ফ্ল্যাটে হত্যা করা হয়েছে...
বাংলাদেশের উপকূলসহ দক্ষিণাঞ্চলে বিশাল এলাকাজুড়ে তাণ্ডব চালিয়ে সিলেট দিয়ে সীমান্ত অতিক্রম করে ভারতের আসামে গিয়ে নিঃশেষিত হয়েছে প্রবল ঘূর্ণিঝড় রিমাল। এর প্রভাবে দেশের বিভিন্ন জেলায় মাঝারি থেকে ভারী...
লোডিং...
Nagad Ads
সর্বশেষপঠিত

এলাকার খবর


© ২০২৪ প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত