সেকশন

শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১
 

রাইসির মৃত্যু চলমান লড়াইয়ে প্রভাব ফেলবে না

আপডেট : ২১ মে ২০২৪, ১১:০৪ এএম

মধ্যপ্রাচ্যের একাধিক স্থানে চলমান সংঘাতের মধ্যে ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির আব্দোল্লাহিয়ানের নিহতের ঘটনাটি নাটকীয় অগ্রগতি হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। তবে এতে চলমান লড়াইগুলোতে খুব বড় প্রভাব ফেলবে না বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। কারণ দেশটির পররাষ্ট্রনীতি ও যুদ্ধবিষয়ক সিদ্ধান্তগুলোতে শেষ সিদ্ধান্ত আসে সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনির কাছ থেকে। 

ইরানের প্রেসিডেন্ট একজন নীতি বাস্তবায়নকারী, তিনি সিদ্ধান্ত গ্রহণকারী নন। ফলে প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসির মৃত্যুতে ইরানের মৌলিক নীতিগুলো আগের মতোই থাকবে।

কারণ, সর্বোচ্চ নেতার হয়ে কাজ করতেন রাইসি। ইরানের সবচেয়ে কম গণতান্ত্রিক নির্বাচনে তিনি জয়ী হয়েছেন। তবে একই সময়ে ইরানের প্রেসিডেন্টের আকস্মিক মৃত্যু ক্ষমতার কেন্দ্রে এক ধরনের শূন্যতা তৈরি করেছে। সরকারে শীর্ষ পদে থাকা ব্যক্তিরা হয়তো এর সুযোগ নিতে দৌড়ঝাঁপ শুরু করতে পারেন।

এমন সুযোগের অপেক্ষায় থাকা প্রভাবশালী ইরানি কর্মকর্তাদের কোনো ঘাটতি নাই। তারা ক্ষমতা কাঠামোর আরও ওপরে উঠতে চান। আর রাইসির আকস্মিক মৃত্যুর ঘটনাটি খোদ খামেনিকেই একটি পরীক্ষার মুখে ফেলে দিয়েছে।

বিশ্লেষকরা বলেছেন, খামেনিকে এই ক্ষমতা হস্তান্তরের মাধ্যমে প্রমাণ করতে হবে নেতা হিসেবে তিনি দায়িত্ব পালনে কতটা সক্ষম।

গুরুত্বপূর্ণ হলো রাইসিকে খামেনির একজন সম্ভাব্য উত্তরসূরি হিসেবে বিবেচনা করা হতো। তিনি ছিলেন অনেক অভিজ্ঞ, একজন মাওলানা, সাবেক প্রধান বিচারপতি ও একটি বড় প্রতিষ্ঠানের সাবেক প্রধান। 

মার্কিন বিশ্লেষকরা বলছেন, তাকে মাঠ থেকে সরিয়ে দেয়া বা অক্ষম কিংবা মৃত- যেভাবেই বলা হোক না কেন তা ইরানের রাজনৈতিক ব্যবস্থার জন্য একটি বড় ধাক্কা।

রাইসির কারণে আড়ালে থাকা পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির আব্দোল্লাহিয়ানের মৃত্যুও তাৎপর্যপূর্ণ। তিনি পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে খুব সক্রিয় ছিলেন। সৌদি আরবের সাথে সফলভাবে সম্পর্ক পুনঃস্থাপনের চুক্তিতে ভূমিকা রেখেছেন। প্রতিবেশী পাকিস্তানসহ বিভিন্ন কঠিন সঙ্কট সফলভাবে সামলে নিয়েছেন।

এই প্রাণহানি ইরানের পররাষ্ট্রনীতিতে হয়তো কোনো পরিবর্তন আনবে না। তবে এই অপ্রত্যাশিত ঘটনা মোকাবিলায় ব্যস্ত থাকার ফলে একাধিক স্থানে ইসরাইলের বিরুদ্ধে লড়াই থেকে ইরানের মনোযোগ কিছুটা সরে যেতে পারে। কাজ করতে হবে অভ্যন্তরীণ রাজনীতি নিয়ে।এরপরও পশ্চামদের বিরুদ্ধে ইরানি উদ্যোগ চলমান থাকবে, এটি প্রায় নিশ্চিত।

একাত্তর/এসি
টাইমলাইন: দুর্ঘটনার কবলে ইরানি প্রেসিডেন্ট
২১ মে ২০২৪, ১০:৪২
রাইসির মৃত্যু চলমান লড়াইয়ে প্রভাব ফেলবে না
সৌদি আরবে এবারের হজে এখন পর্যন্ত অন্তত ১৯ হজযাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে জর্ডানের ১৪ জন এবং ইরানের পাঁচজন। গতকাল রোববার জর্ডান ও ইরানের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এসব তথ্য নিশ্চিত করেছে।
ইরান তাদের পারমাণবিক সক্ষমতা আরও বাড়াচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থা (আইএইএ)। ইরানের পক্ষ থেকে যথেষ্ট সহযোগিতা না পাওয়ার সমালোচনা করে সংস্থাটির গভর্নর বোর্ড প্রস্তাব পাস করার...
ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরানের ১৪তম প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য এরিমধ্যে চূড়ান্তভাবে ছয় প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হয়েছে। তবে এ তালিকায় নেই দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আহমাদিনেজাদ।
ইরানের প্রয়াত প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসির উত্তরসূরি নির্বাচনে দেশটির স্পিকারসহ ছয় জনের প্রার্থিতায় অনুমদোন দিয়েছে ইরানের সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারতি স্তর- গার্ডিয়ান কাউন্সিল। এই জনের মধ্যে নাম নেই...
পাহাড়ি ঢলে উজান থেকে আসা পানির প্রবল স্রোত ও ভারী বর্ষণের পর বন্যা কবলিত সিলেট অঞ্চলে কিছুটা সুখবর মিলেছে। নতুন করে বৃষ্টি হয়নি, আকাশ থেকে মেঘ সরে দেখা মিলেছে রোদের। 
কথায় বলে রেকর্ডের খেলা ক্রিকেট। একটি ম্যাচের প্রতিটি বলেই থাকে রেকর্ডের হাতছানি। তবে, চলমান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে একটি অনন্য রেকর্ড গড়েছেন অস্ট্রেলিয়ার পেসার মিচেল স্টার্ক। বিশ্বকাপের আসরে তিনিই...
একের পর এক হামলায় ধ্বংসস্তূপে পরিণত হচ্ছে গাজার দক্ষিঞ্চলীয় রাফাহ শহর। গাজার শেষ আশ্রয় এই শহরটির আরও ভেতরে প্রবেশ করতে শুরু করেছে ইসরাইলি ট্যাংক।
শেরপুরে বিলের পানি দেখতে গিয়ে নৌকাডুবে দুই শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন। তাদের একজন মেডিক্যাল এবং অন্যজন অনার্স পড়ুয়া। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন তিন জন। তাদের সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
লোডিং...
Nagad Ads
সর্বশেষপঠিত

এলাকার খবর


© ২০২৪ প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত