সেকশন

শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১
 

জিম্মিদের ফিরিয়ে আনার দাবিতে আবার উত্তাল ইসরাইল

আপডেট : ০৫ মে ২০২৪, ০৬:২০ পিএম

ফিলিস্তিনি সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাসের হাতে বন্দি জিম্মিদের ফিরিয়ে আনার জন্য চুক্তির দাবিতে শনিবার গভীর রাত পর্যন্ত ইসরাইলে হাজার হাজার মানুষ বিক্ষোভ করেছেন। যুদ্ধবিরতি নিয়ে আরও আলোচনার আগে আগে ইসরাইলে বড় ধরনের এ বিক্ষোভ হলো।

তেল আবিবে বিক্ষোভে অংশ নেওয়া বিক্ষোভকারীরা যুদ্ধবিরোধী নানা স্লোগান দেন। বিক্ষোভকারীদের কেউ কেউ ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুকে গাজায় সংঘাত দীর্ঘায়িত করার জন্য অভিযুক্ত করেন। খবর বিবিসি’র।

শনিবার মিসরে হামাসের একটি প্রতিনিধিদল মধ্যস্থতাকারীদের সাথে আলোচনা করতে এসেছিল।

 শনিবারের আলোচনা শেষে হামাস বলেছে, আলোচনায় এখন পর্যন্ত নতুন কোনো অগ্রগতি নেই। তবে রোববার নতুন দফার আলোচনা শুরু হবে।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত মিসর ও কাতারের মধ্যস্থতায় কায়রোর আলোচনা আবার শুরু হয়েছে। জিম্মিদের মুক্তির বিনিময়ে গাজায় ইসরাইলের হামলা থামানোর লক্ষ্যে আলোচনা চলছে।

তবে, চুক্তিটি অস্থায়ী নাকি স্থায়ী হবে, সে বিষয়ে সমঝোতা আটকে আছে বলে মনে হচ্ছে। গাজায় ৪০ দিনের একটি যুদ্ধবিরতি এবং এ সময়ে হামাসের হাতে বন্দি ইসরাইলি জিম্মিদের মুক্তির বিনিময়ে ইসরাইলি কারাগারে বন্দি ফিলিস্তিনিদের মুক্তির বিষয়টি এখন কায়রোর আলোচনার টেবিলে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

হামাস নেতা ইসমাইল হানিয়ার একজন উপদেষ্টা জানান, হামাস ‘সম্পূর্ণ গুরুত্ব সহকারে’ সর্বশেষ প্রস্তাবটি খতিয়ে দেখছে।

 তবে তিনি যেকোনো চুক্তিতে স্পষ্টভাবে গাজা থেকে ইসরাইলি সেনা প্রত্যাহার এবং যুদ্ধের সম্পূর্ণ সমাপ্তি অন্তর্ভুক্ত থাকার হামাসের দাবির কথা পুনরায় জানান।

এদিকে, বিবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ইসরাইলি মন্ত্রী আমিচাই চিকলি বলেছেন, ‘হামাস নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত’ যুদ্ধ চলবে। তিনি বলেন, ‘আমাদের কাছে এমন একটি চুক্তিতে সম্মত হওয়ার উপায় যেখানে যুদ্ধের সমাপ্তি বা রাফাতে একটি পূর্ণ মাত্রার অপারেশন ছাড়াই গাজা ছেড়ে দেওয়া অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

গতকাল ইসরাইলে যে বিক্ষোভ হলো, তা একটি চুক্তির জন্য নেতানিয়াহু সরকারের ওপর অভ্যন্তরীণ চাপ বাড়তে থাকার সর্বশেষ নিদর্শন। জিম্মিদের ইসরাইলে ফিরিয়ে আনার জন্য প্রবল চাপের মুখে আছেন নেতানিয়াহু।

গত ৭ অক্টোবর হামাস ইসরাইলে হামলা চালায়। হামলাকালে তারা ২৫২ জনকে জিম্মি করে নিয়ে যায়। তাদের মধ্যে ১২৮ জন এখনও জিম্মি অবস্থায় গাজায় আছেন। তাদের মধ্যে অন্তত ৩৪ জন মারা গেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তেল আবিবে গতকালের বিক্ষোভে অংশ নিয়েছিলেন নাটালি এলডোর নামের এক ইসরাইলি। নাটালি বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, তিনি একটি চুক্তি সমর্থনে বিক্ষোভে অংশ নিয়েছেন। জীবিত, মৃতসহ সব জিম্মিকে ফিরিয়ে আনতে হবে। নয়তো এই সরকার পরিবর্তন করতে হবে।

এদিকে, শনিবার একটি যুদ্ধবিরতির সম্ভাবনার কথা উল্লেখ করে ইসরাইলের যুদ্ধকালীন মন্ত্রিসভার মন্ত্রী বেনি গ্যান্টজ বলেন, রূপরেখার বিষয়ে কোনো আনুষ্ঠানিক কিছু এখনও পাওয়া যায়নি। যখন তা গৃহীত হবে, তখন যুদ্ধকালীন মন্ত্রিসভা বৈঠক করবে এবং আলোচনা করবে।

 

একাত্তর/জো
টাইমলাইন: হামাস-ইসরাইল সংঘর্ষ
২৯ মে ২০২৪, ১৬:০৫
বিশ্বের অন্যতম বাণিজ্যিক সমুদ্রপথ লোহিত সাগর এখন ইসরাইল সংশ্লিষ্ট দেশগুলোর জন্য রীতিমতো নরকে পরিণত হয়েছে। ইয়েমেন সশস্ত্র গোষ্ঠী হুতি যোদ্ধাদের তাণ্ডবে এই সমুদ্রপথে প্রায় প্রতিদিনই পশ্চিমা বাণিজ্য...
ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় গণহত্যা ও আগ্রাসন চালাতে গিয়ে ইসরাইলি বাহিনীর ৭০ হাজারের বেশি সেনা যুদ্ধের জন্য অক্ষম হয়ে পড়েছে। গাজা যুদ্ধে এ পর্যন্ত আট হাজারের বেশি আহত ও হাজারের বেশি...
সীমান্তে লেবাননের সশস্ত্র গোষ্ঠী হিজবুল্লাহর সঙ্গে ইসরাইলি সেনাদের সংঘর্ষের মাত্রা বেড়েছে এবং সম্ভাব্য যুদ্ধ নিয়ে উভয় পক্ষই হুমকি দিয়ে আসছে। সম্প্রতি হাইফা শহরে নজরদারির ফুটেজ প্রকাশের পর গোষ্ঠীটির...
ইসরাইলের হাইফা বন্দরসহ বেশ কিছু স্পর্শকাতর স্থানে নজরদারির ড্রোন ফুটেজ প্রকাশ করেছে লেবাননের সশস্ত্র গোষ্ঠী হিজবুল্লাহ। মঙ্গলবার ৯ মিনিট ৩১ সেকেন্ডের ওই ভিডিও প্রকাশ করে হিজবুল্লাহ।
‘যুগ বদলে একাত্তর’- স্লোগান সামনে রেখে ১২ পেরিয়ে ১৩ বছরে পা রাখলো দেশের প্রথম সংবাদভিত্তিক এইচডি টেলিভিশন একাত্তর।
দীর্ঘ এক যুগ চড়াই-উৎরাইয়ের মধ্য দিয়ে মানুষের মন জয় করে নেওয়া দেশের অন্যতম জনপ্রিয় চ্যানেল একাত্তর টেলিভিশন পথ চলার ১২ বছর পূর্ণ করলো।
সরকারি চাকরিতে কোটাবিরোধী আন্দোলনকারীদের সঙ্গে সমঝোতা করার প্রস্তাব দিলেন আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য রফিকুল ইসলাম বীরউত্তম।
২৪ ঘণ্টায় দেশে ৯ করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। রোগী শনাক্তের হার দাঁড়িয়েছে ৪ দশমিক ৩১ শতাংশে। যা গতদিনের তুলনায় কম।
লোডিং...
Nagad Ads
সর্বশেষপঠিত

এলাকার খবর


© ২০২৪ প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত